land gov bd

আমাদের সাথে যোগাযোগের ঠিকানা: ফেসবুক গ্রুপ, হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ, ই-মেইলঃ [email protected]

বাংলাদেশে সবচেয়ে তে যে সমস্যাটি মানুষের মধ্যে বিরাজ করে তা হচ্ছে জমিজমা নিয়ে । তাই সরকার বর্তমানে ভূমি সেবাকে ই পর্চা – eporcha হিসেবে ঘোষণা করেছে । এই লক্ষ্যে সারাদেশে বিভিন্ন কার্যক্রম অনলাইনে সম্পুর্ন করতেছে, তারই ধারাবাহিকতায় আপনি যখন স্বপ্নের একখণ্ড জমি কিনবেন সাথে সাথে আপনি তা মিউটেশন বা নামজারি অথবা খারিজ যে নামে বলি না কেন তা সম্পূর্ণ করে ফেলবেন । কারন নামজারি ছাড়া একটি ভূমির অস্তিত্ব বিহীন।

তাই সরকার বর্তমানে সহজেই নামজারি কিভাবে করা যায় তা ভূমি মন্ত্রণালয়ের ইস্মার্ট ভূমিসেবার নাগরিক সেবা কন্যারে ওয়েবসাইটে www.land.gov bd গেলে আপনি সহজেই জানতে পারবেন । এখন অনলাইনে ঘরে বসেই আপনি সহজেই নামজারি সম্পন্ন করতে পারবেন এবং অনলাইনে চেক করে নিতে পারবেন আপনার এই নামজারি টি ঠিক আছে কিনা। এই সব নিয়ে মূলত এই পোস্ট আজকে করা হয়েছে । এখান থেকে বিস্তারিত জেনে আপনি আপনার কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন।

ই-নামজারি
ই-নামজারি
ভূমি উন্নয়ন কর
ভূমি উন্নয়ন কর
স্মার্ট ভূমি রেকর্ড ও ম্যাপ
স্মার্ট ভূমি রেকর্ড ও ম্যাপ
স্মার্ট ভূমি নকশা
স্মার্ট ভূমি নকশা
মর্টগেজ তথ্য যাচাই
মর্টগেজ তথ্য যাচাই
স্মার্ট ভূমি পিডিয়া
স্মার্ট ভূমি পিডিয়া

খতিয়ান বা পর্চা

আপনি ল্যান্ড রেকর্ড ও ভূমি সংক্রান্ত সেবা প্রদানকারী ওয়েবসাইট land.gov.bd এর ই-নামজারি পেজ থেকে আবেদন করে তা এক্ষত্রে পরিক্ষা করতে পারেন। আবেদনের ট্র্যাকিং অপশন থেকে আপনি আবেদন নম্বর এবং জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিয়ে আবেদনের অবস্থা জানতে পারবেন। আপনার আবেদন মঞ্জুর হলে আপনার কাছে একটি খতিয়ান বা পর্চা জারি করা হবে।

আপনি ল্যান্ড রেকর্ড ও ভূমি সংক্রান্ত সেবা প্রদানকারী ওয়েবসাইট land.gov.bd এর ই-নামজারি পেজ থেকে প্রাপ্ত খতিয়ান বা পর্চার থাকা  আপনি নিজে সেই খতিয়ান বা পর্চা পরীক্ষা করতে পারেন।

খতিয়ান অনলাইনে জমি যাচাই করুণ

খতিয়ান বা পর্চার উপর দেওয়া QR Scanner মোবাইল দিয়ে স্কান করে নামজারি বা খতিয়ান এর  সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য দেখতে পারবেন।, যেমন জমির বিস্তার, কিস্তির সংখ্যা, জমির অবস্থান ইত্যাদি। এছাড়াও আপনার নাম, পিতার নাম, মাতার নাম, সম্পদের প্রকার ইত্যাদি তথ্য সরবরাহ করতে হবে।

খতিয়ান অথবা Mutation (ই-নামজারি)  কিউ আর কোড দিয়ে চেক করার আগে আপনাকে – Google Play তে অ্যাপ থেকে QR Scanner আপস ডাউনলোড করে ইন্সটল করে নিতে হবে তার পর খতিয়ান অথবা Mutation (ই-নামজারি)  কিউ আর কোড দিয়ে চেক করুণ।

খতিয়ান বা পর্চার উপর কোন তথ্য ভুল থাকলে তা সংশোধন করার পর আপনাকে আবার তা জমা দিতে হবে। সমস্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে আপনি আপনার খতিয়ান বা পর্চা সংগ্রহ কর।

আরো দেখুনঃ নামজারি জন্য প্রয়োজনঃ অনলাইনে মৃত্যু সনদের জন্য আবেদন ও ডাউনলোড করুন।

নামজারির জন্য আবেদন করতে যে সকল কাগজপত্র প্রয়োজন পড়বে

  • ক্রয়সূত্রে মালিক হলে উক্ত দলিলের সার্টিফায়েড কপি।
  • ওয়ারিশসূত্রে মালিকানা লাভ করলে অনধিক তিন মাসের মধ্যে ইস্যুকৃত ওয়ারিশ সনদ।
  • বায়া দলিলের কপি।
  • জমির সবগুলো খতিয়ানের ফটোকপি।
  • ১ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্ট/ওয়ার্ড কাউন্সিলর কর্তৃক ইস্যুকৃত নাগরিকত্ব সনদ।
  • ভূমি উন্নয়ন কর বা খাজনা রশিদ।

ই-নামজারি: অনলাইনে জমি খারিজ বা মিউটেশন (mutation) সংগ্রহ

জমি খারিজ বা মিউটেশন (mutation) যাচাই করতে ল্যান্ড রেকর্ড ও ভূমি সংক্রান্ত সেবা প্রদানকারী ওয়েবসাইট land.gov.bd এর ই-নামজারি পেজে যাওয়া প্রয়োজন। আপনি ই-নামজারি পেজে গিয়ে আবেদন ট্র্যাকিং অপশনে বিভাগ সিলেক্ট করে আবেদন নম্বর জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিয়ে ট্র্যাকিং করে জমি খারিজ বা মিউটেশন (mutation) যাচাই করতে পারেন।

আপনার একাধিক জমি থাকলে আপনি প্রতিটি জমির জন্য একটি বিবরণ প্রদান করতে হবে। এটি আপনার জমির নাম, পরিমাণ, জমির অবস্থান, পুর্ববর্তী মালিকের নাম এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিবরণগুলি অন্তর্ভুক্ত করবে।

আপনার জমি খারিজ বা মিউটেশন (mutation) সম্পর্কিত কোন তথ্য ভুল থাকলে, তা সংশোধন করতে হবে। সমস্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলে আপনি আপনার জমি খারিজ বা মিউটেশন (mutation) সংগ্রহ করতে পারবেন ভূমি অফিস থেকে। এছেডা আপনি চাইলে অনলাইন থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন নামজারি কপি।

ই-নামজারি: অনলাইনে জমি খারিজ বা মিউটেশন (mutation) যাচাই করুণ

ভূমির ই-নামজারি করার জন্য ব্যবহার নির্দেশিকা

ভূমির ই-নামজারি করার জন্য আপনার নিম্নোক্ত ধাপসমূহ অনুসরণ করতে হবে:

১. প্রথমে ল্যান্ড রেকর্ড ও ভূমি সংক্রান্ত সেবা প্রদানকারী ওয়েবসাইট land.gov.bd এ যাওয়া হবে।

২. এখন ই-নামজারি বিকল্প সিলেক্ট করুন। এই অপশন আপনাকে সকল জমি ও দখল সম্পর্কিত তথ্য প্রদান করতে হবে।

৩. এবারে আপনাকে একটি আবেদন ফরম পূর্ণ করতে হবে। এখানে আপনাকে আবেদনকারীর নাম, পিতার নাম, জন্ম তারিখ, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ইত্যাদি তথ্য প্রদান করতে হবে। সেইমসাথে জমি সংক্রান্ত তথ্যও প্রদান করতে হবে যেমন জমির অবস্থান, জমির পরিমাণ, জমি খারিজ করার কারন ইত্যাদি।

৪. আবেদন ফরম পূরণের পর একটি পেজ প্রদর্শিত হবে যেখানে সমস্ত প্রদত্ত তথ্য একটি সারসংক্ষেপ রূপে দেখানো হবে। ভূমির ই-নামজারি করার জন্য ব্যবহার নির্দেশিকা নিচে দেওয়া হলো:

প্রথমে আপনাকে land.gov.bd ওয়েবসাইটে যাওয়া হবে। ওয়েবসাইটে আপনি একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন বা বিদ্যমান একটি অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করতে পারেন।

অ্যাকাউন্ট তৈরি করার পর, আপনাকে ই-নামজারি অপশনে ক্লিক করতে হবে। এরপর আপনাকে নিম্নলিখিত ধাপগুলি অনুসরণ করতে হবে:

১। আবেদন ফর্ম পূরণ করুন। আবেদন ফর্ম পূরণের জন্য আপনাকে আপনার সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত তথ্য এবং জমির সম্পর্কিত তথ্য প্রদান করতে হবে।

২। দলিল প্রস্তুত করুন। আপনাকে আপনার জমির জন্য আবশ্যক সকল দলিল প্রস্তুত করতে হবে। দলিল সম্পর্কিত তথ্য প্রদান করতে হবে যেমন আবদ্ধতা সনদ, জমির খতিয়ান, চারিত্রিক দলিল ইত্যাদি।

৩। আবেদন সম্পন্ন করুন।

নামজারি আবেদন – ভূমি মন্ত্রণালয়

নামজারি আবেদন করার জন্য আপনাকে নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলো অনুসরণ করতে হবে:

১. প্রথমে https://mutation.land.gov.bd/ ওয়েবসাইটে যান।

২. ওয়েবসাইটে গিয়ে একাউন্ট করুন অথবা লগইন করুন। এর জন্য আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করতে হবে।

৩. লগইন হওয়ার পরে, সেখানে নামজারি আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। এই ফরমে আপনাকে আবেদনকারীর নাম, ঠিকানা, পাসপোর্ট সাইজ ছবি এবং প্রয়োজনীয় তথ্যগুলি প্রদান করতে হবে।

৪. তথ্য প্রদানের পরে, ফরমটি সাবমিট করতে হবে। এবার আপনাকে একটি আবেদন নম্বর প্রদান করা হবে।

৫. এখন আপনাকে নামজারি আবেদনটির অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে হবে। আবেদনটি নিষ্ক্রিয় থাকলে অবস্থাটি জানতে সমস্যা হতে পারে।

৬. যদি আপনার আবেদনটি মঞ্জুর হয়।

আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা – নামজারি আবেদন – ভূমি মন্ত্রণালয়

নামজারি আবেদনের সর্বশেষ অবস্থা জানতে আপনি land.gov.bd ঠিকানায় গিয়ে ই-নামজারি পেজে যাওয়ার পর নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে পারেন:

  1. “আবেদন সম্পন্ন হয়েছে” এমন মেসেজ দেখালে আপনার নামজারি আবেদন সম্পন্ন হয়েছে এবং তার মেসেজ এইভাবে দেখানো হবেঃ “আপনার আবেদনের স্থিতি হল ‘সম্পন্ন হয়েছে’, আবেদন নং: [আবেদন নম্বর]।”
  2. আবেদনের অবস্থার তথ্য পেতে আপনি land.gov.bd এ যাওয়ার পর সেখানে আপনার আবেদন নম্বর এবং জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিয়ে ট্র্যাকিং করতে পারেন।
  3. আবেদন সম্পন্ন হওয়ার পর আপনি ই-নামজারি পেজে যাওয়ার পর আবেদন সম্পন্ন হওয়ার কপি ডাউনলোড করতে পারেন। সেই পেজে আপনি “আবেদন ফলাফল” এ ক্লিক করে ফলাফল দেখতে পারেন এবং একটি পিডিএফ ফাইল হিসেবে ডাউনলোড করুণ।
0
মোট ভিজিটর
0
মোট সেবা গ্রহিতা
0
আজকের সেবা গ্রহীতা
www.land.gov bd আর এস খতিয়ান
ভূমি মন্ত্রণালয়-গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
যোগাযোগ
যোগাযোগ
কারিগরি সহায়তায়
কারিগরি সহায়তায়
Scroll to Top